বৃহস্পতিবার , ৬ এপ্রিল ২০২৩ | ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. জাতীয়
  2. রাঙামাটি
  3. খাগড়াছড়ি
  4. বান্দরবান
  5. পর্যটন
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. রাজনীতি
  8. অর্থনীতি
  9. এনজিও
  10. উন্নয়ন খবর
  11. আইন ও অপরাধ
  12. ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী
  13. চাকরির খবর-দরপত্র বিজ্ঞপ্তি
  14. অন্যান্য
  15. কৃষি ও প্রকৃতি
  16. প্রযুক্তি বিশ্ব
  17. ক্রীড়া ও সংস্কৃতি
  18. শিক্ষাঙ্গন
  19. লাইফ স্টাইল
  20. সাহিত্য
  21. খোলা জানালা

পার্বত্য চট্টগ্রাম হবে বাংলাদেশের কৃষি অর্থনৈতিক অঞ্চল -কৃষি মন্ত্রী

প্রতিবেদক
এম কামাল উদ্দিন, রাঙামাটি
এপ্রিল ৬, ২০২৩ ১১:১৬ অপরাহ্ণ

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, আগামীতে পার্বত্য চট্টগ্রাম হবে বাংলাদেশের কৃষি অর্থনৈতিক অঞ্চল।

সেই লক্ষ্য নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার।

আশা করছি, শিগগিরই এ ঘোষণা দেওয়া সম্ভব হবে। এজন্য কৃষি বিভাগকে দ্রুত কাজ করার নির্দেশনা দিয়ে তিনি বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের কৃষকদেরকে সনাতন পদ্ধতির জুমচাষ থেকে বের হয়ে আধুনিক ও উন্নত চাষাবাদের মাধ্যমে নিজেদের অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা বাড়াতে হবে।


বৃহস্পতিবার রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ও কুতুকছড়ি ইউনিয়ন এবং নানিয়ারচর উপজেলার বিভিন্ন পাহাড়ি গ্রামে কাজুবাদাম ও কফিবাগানসহ তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধিতে বিভিন্ন কৃষি খামার ও বাগান পরিদর্শনকালে স্থানীয় কৃষকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।


মন্ত্রী বলেন, তিন পার্বত্য জেলায় জেলায় সম্ভাবনাময় কাজুবাদাম ও কফি আবাদ, সম্প্রসারণ এবং বিভিন্ন জাতের ফলসহ টেকসই ফলের আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধি করতে হবে। পার্বত্য চট্টগ্রামে কৃষিকে আরও কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায়- তা মাথায় রেখে সরকার কৃষিকে ঢেলে সাজাতে কৃষি বিভাগকে শক্তিশালী করতে চায়। সেই লক্ষ্যেই কৃষি মন্ত্রণালয়ের বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে আমার এ সফর। পাহাড়ে কৃষিখাতের উন্নয়নে পতিত জমিগুলোকে চাষাবাদের আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে কৃষকদেরকে নানা রকম সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে। যাতে কৃষক নিজের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি কৃষি ফসল থেকে অর্জিত অর্থ দিয়ে জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করতে পারেন।


কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, দেশে ও আন্তজার্তিক বাজারে কাজুবাদাম ও কফির চাষের বিশাল চাহিদা রয়েছে। দামও অনেক বেশি। সেজন্য এসব ফসলের চাষাবাদ ও প্রক্রিয়াজাত বাড়াতে হবে। পাহাড়ের বৃহৎ এলাকাজুড়ে এসব ফসল চাষের সম্ভাবনা অনেক। এসব ফসলের চাষ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতে পারলে পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকার অর্থনীতিতে বড় ধরনের বিপ্লব ঘটবে। পাহাড়ি এলাকায় মানুষের জীবনযাত্রার মান দ্রুত উন্নতি ঘটবে। এসব ফসলের উৎপাদিত পণ্য দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রফতানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সম্ভব। পাহাড়ে এসব চাষ জনপ্রিয় করতে কৃষক ও উদ্যেক্তাদেরকে বিনামূল্যে উন্নত জাতের চারা বিতরণ, প্রযুক্তি ও পরামর্শ সেবা করে যাচ্ছি। এখন পর্যন্ত কফি ও কাজুবাদামের ১২ লাখ চারা বিনামূল্যে কৃষকদেরকে দেওয়া হয়েছে। চলতি বছর আরও ২০ লাখ চারা দেওয়া হবে।
কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি পরিদর্শন শেষে বুধবার সন্ধ্যায় রাঙামাটি যান। বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ও কুতুকছড়ি ইউনিয়নে সূর্য্যমুখী প্রণোদনা কার্যক্রম, কমিউনিটি বেইজড ভার্মি কম্পোস্ট, ড্রাগনবাগান, মালটাবাগান, তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির খেত এবং বঙ্গবন্ধু ধান-১০০’এর প্রদর্শনী ক্ষেত্র পরিদর্শন করেন। এরপর দুপুরে জেলার নানিয়ারচর উপজেলার হাজাছড়া, তৈচাকমা ব্লক ও দ্বিচানপাড়ায় কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় কাজুবাদাম ও কফি প্রদর্শনী, অনাবাদি পতিত জমি ও বসতবাড়ির আঙ্গিনায় পারিবারিক পুষ্টিবাগান পরিদর্শনসহ কৃষকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। বিকালে রাঙামাটি সদরের বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের রাঙামাটির অতিরিক্ত পরিচালকের কার্যালয়ে কৃষি আবহাওয়া রেডিও, রাঙামাটি ও ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ড উদ্বোধন শেষে শহরের শাহ বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়ে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরীর সভাপতিত্বে জেলার কৃষক ও সুধীজনের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।


পরিদর্শনকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদা এমপি, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, খাগড়াছড়ি মহিলা আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমা এমপি, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব ওয়াহিদা আক্তার, বিএআরসি নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ বখতিয়ার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর মহা-পরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস, জেলা প্রশাসক মো. মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ উপস্থিত ছিলেন।
কৃষিমন্ত্রী বলেন, গতানুগতিক কৃষিকাজ করে মানুষের জীবনমানের পরিবর্তন হবে না। কৃষি আধুনিক হলেই মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার কৃষিকে আধুনিক ও লাভজনক করতে কাজ করছে। কৃষি উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাত ও রপ্তানি বৃদ্ধিতে বর্তমান সরকার সমন্বিত কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। নানান উদ্যোগের ফলে কৃষি এখন যান্ত্রিকীকরণ হচ্ছে। কৃষিপণ্যের প্রক্রিয়াজাত বাড়ছে, রপ্তানিও বাড়ছে। ভিয়েতনাম কাজুবাদাম রপ্তানি করে বছরে ৪০ হাজার কোটি টাকা আয় করে। দেশটি যে পরিমাণ রপ্তানি করে, তার ৪০ ভাগ স্থানীয়ভাবে উৎপাদন করে। বাকি ৫০-৬০ ভাগ বিদেশ থেকে আমদানি করে প্রক্রিয়াজাত করে রপ্তানি করে থাকে। আমাদের দেশেও কাজুবাদাম উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাত করে ভিয়েতনামের মতো আয় করা সম্ভব। সেজন্য পাহাড়ের বিশাল এলাকায় এসব ফসলের চাষ আরও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতে হবে। সেলক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। কৃষিকে আরও লাভজনক করতে হলে ধান, গম, শাকসবজিসহ প্রচলিত ফসলের পাশাপাশি কফি, কাজুবাদাম, গোলমরিচ, আনারস, আমসহ বিভিন্ন অপ্রচলিত অর্থকরি ফসলের চাষ করতে হবে।
মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী বলেন, ক্ষমতায় যাওয়ার একমাত্র পথ হলো নির্বাচন। আওয়ামী লীগ কোনো দিন নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতায় আসেনি। আগামী নির্বাচন যথাসময়ে হবে, সুষ্ঠু ও সুন্দর হবে।
তিনি বলেন, বিএনপি সব সময়ই চোরাগলি পথে ক্ষমতায় এসেছে। নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া চোরাগলি পথে বিএনপিকে আর কখনো ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা স্থাপন করেছেন এবং এই অঞ্চলের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কাজেই পাহাড়ের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। পাহাড়ে বিদ্যমান শান্তি ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে হবে। স্বাধীনতাবিরোধীদের প্রতিহত করতে হবে।
পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, সিলেট ও মৌলভীবাজার যেমন চায়ের জন্য নামকরা, তেমনি কাজুবাদাম ও কফির জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলা পরিচিত হয়ে উঠবে। কফি-কাজু বললেই মানুষ পাহাড়কে চিনবে। পাহাড়ে কাজুবাদাম ও কফি চাষের সম্ভাবনা অনেক। এসব ফসল একবার লাগালে অনেকদিন টিকবে। বছর বছর ফসল লাগাতে হবে না। এতে অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল হওয়া যাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন এগিয়ে চলেছে। এ উন্নয়ন যাত্রা অব্যাহত থাকলে পার্বত্য অঞ্চল দেশের জন্য বোঝা নয়, সবচেয়ে সম্পদশালী এলাকায় পরিণত হবে।

সর্বশেষ - আইন ও অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

রুমায় সৌরবিদ্যুতের ব্যাটারী বিষ্ফোরণে পুড়লো ১২ ঘর

খাগড়াছড়িতে বঙ্গমাতার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

সনাকের সাথে রাঙামাটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মতবিনিময়        

প্রধানমন্ত্রীর উপহার সোলার প্যানেল পার্বত্যবাসীর রাতের অন্ধকারকে আলোকিত করেছে- পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

খাগড়াছড়িতে সেলাই মেশিন ও বাদ্যযন্ত্র বিতরণ

বিলাইছড়িতে দৃশ্যমান হচ্ছে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম 

নানান আয়োজনে বাঘাইছড়িতে নববর্ষ বরণ

পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় পতাকা বিতরণ

কাপ্তাইয়ে শিক্ষক-সুপারভাইজারদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ শুরু 

২০১৯ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুর্বৃত্তদের ব্রাশ ফায়ারে নিহতদের স্মরণে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মিত

%d bloggers like this: