শুক্রবার , ১০ মে ২০২৪ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. জাতীয়
  2. রাঙামাটি
  3. খাগড়াছড়ি
  4. বান্দরবান
  5. পর্যটন
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. রাজনীতি
  8. অর্থনীতি
  9. এনজিও
  10. উন্নয়ন খবর
  11. আইন ও অপরাধ
  12. ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী
  13. চাকরির খবর-দরপত্র বিজ্ঞপ্তি
  14. অন্যান্য
  15. কৃষি ও প্রকৃতি
  16. প্রযুক্তি বিশ্ব
  17. ক্রীড়া ও সংস্কৃতি
  18. শিক্ষাঙ্গন
  19. লাইফ স্টাইল
  20. সাহিত্য
  21. খোলা জানালা

প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত করে গ্রেফতার স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি 

প্রতিবেদক
ঝুলন দত্ত, কাপ্তাই, রাঙামাটি
মে ১০, ২০২৪ ৯:০৯ পূর্বাহ্ণ

 

রাঙামাটির কাপ্তাই  উপজেলার রাইখালী  ডংনালা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ২ নং রাইখালী ইউনিয়ন এর ৬ নং ওয়ার্ডের    ইউপি সদস্য  উচ্হ্লা মারমা   কর্তৃক শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত হবার অভিযোগ করেছেন ঐ  স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিথুন কান্তি সাহা। পরে বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায়  চন্দ্রঘোনা থানায় প্রধান শিক্ষক এর   অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যকে রাতেই ডংনালা এলাকা হতে আটক করেন পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার ( ৯ মে) সকাল ১১ টা ১৫ মিনিটে প্রধান শিক্ষক এর কক্ষে এই ঘটনা ঘটে বলে জানান প্রধান শিক্ষক মিথুন কান্তি সাহা। তিনি মুঠোফোনে বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায়  এই প্রতিবেদককে জানান,  ডংনালা উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী পরিচ্ছন্নতা কর্মী মাচিংউ মারমার স্কুলে চাকরী এমপিও ভুক্ত হওয়ায় এবং প্রথম বেতনের টাকা পেয়ে খুশীতে নিজের ইচ্ছায় স্কুলের  সকল শিক্ষকদের নিজ বেতনের টাকা থেকে এক বেলা মধ্যাহ্নভোজ করানোর জন্য ইচ্ছা পোষণ করেন।নিজের ইচ্ছা পূরণ করতে গত  বৃহস্পতিবার( ৯ মে) শিক্ষকদের জন্য বিদ্যালয়ের একটি রুমে মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করেন।উক্ত আয়োজনে এলাকার ২/৩ জন গণ্যমান্য ব্যক্তিকেও উক্ত পরিচ্ছন্নতা কর্মী দাওয়াত করেন। এসময় সকাল ১১ টায় স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি উচাহ্লা মারমা আমার কক্ষে প্রবেশ করে   জানতে চান এখানে পিকনিক হচ্ছে কেন এবং কেন সভাপতিকে দাওয়াত করা হয় নাই। এসময় আমি উনাকে বলি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর এক কর্মচারী এমপিও ভুক্ত হওয়ায় দুপুরে খাবারের আয়োজন করেন ঐ কর্মচারী। তিনি কাকে দাওয়াত দিয়েছেন সেই বিষয়ে আমাকে অবহিত করেন নাই।   একথা শুনার সাথে সাথে সভাপতি আমাকে থাপ্পড় মারে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেন  এবং নানা ভাবে হুমকি প্রদান করেন।  সেই সময় স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক রাজেস ভট্টাচার্য প্রতিবাদ করলে তাকেও শাসান তিনি।

বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি, তাই বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় আমি চন্দ্রঘোনা থানায় তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করি।

এদিকে এদিন রাত ৮ টায় মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য উচালা মারমা সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর পরে কথা বলবেন বলে কল কেটে দেন।

চন্দ্রঘোনা থানার ওসি আনছারুল করিম বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় স্কুলে প্রধান শিক্ষক থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন এবং সেই অ়ভিযোগের প্রেক্ষিতে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়।  পুলিশ অভিযুক্ত ইউপি সদস্য উচাহ্লা মারমাকে বৃহস্পতিবার রাত  ১০ টায় ডংনালা এলাকায়  আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। শুক্রবার বিবাদীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে ওসি জানান।

 

সর্বশেষ - আইন ও অপরাধ

%d bloggers like this: