বুধবার , ৭ ডিসেম্বর ২০২২ | ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. জাতীয়
  2. রাঙামাটি
  3. খাগড়াছড়ি
  4. বান্দরবান
  5. পর্যটন
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. রাজনীতি
  8. অর্থনীতি
  9. এনজিও
  10. উন্নয়ন খবর
  11. আইন ও অপরাধ
  12. ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী
  13. চাকরির খবর-দরপত্র বিজ্ঞপ্তি
  14. অন্যান্য
  15. কৃষি ও প্রকৃতি
  16. প্রযুক্তি বিশ্ব
  17. ক্রীড়া ও সংস্কৃতি
  18. শিক্ষাঙ্গন
  19. লাইফ স্টাইল
  20. সাহিত্য
  21. খোলা জানালা

পাহাড়ে তুলা চাষের ব্যপক সম্ভাবনা রয়েছে

প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি
ডিসেম্বর ৭, ২০২২ ১:৫১ অপরাহ্ণ

পাহাড়ের পুরনো গৌরব ফেরাবে তুলা। সে গৌরব ফেরানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেছ বাংলাদেশ তুলা উন্নয়ন বোর্ড।

বুধবার সকালে রাঙামাটি জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে তুলা গবেষণা,  তুলা চাষ সম্প্রসারণ  ও বাজারজাত করণের চ্যালেঞ্জ  এবং সম্ভাবনা  শীর্ষক  কর্মশালায় এ কথা বলেন তুলা বোর্ডের কর্মকর্তারা।

তুলা কর্মকর্তারা বলেন, পাহাড়ে তুলা চাষের ব্যপক সম্ভাবনা রয়েছে। এখানে তুলার ফলন অভাবনীয়। বিভিন্ন টেক্সটাইল মিলে পাহাড়ে উৎপাদিত তুলার ব্যপক চাহিদা আছে। কোন তুলা অবিক্রীত থাকে না। যখন তখন তুলা বিক্রি করা যায়। এটি পচে নষ্ট হবে এমন নয়। সব তুলাচাষী লাভবান হয়। পার্বত্য জেলা পরিষদের আওতাধীন তুলা বোর্ডের কার্যালয় তুলা চাষীদের তুলা বীজ সরবরাহ করার পাশাপাশি অন্যান্য সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙামাটি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী।

এ সময় তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম তুলার গৌরব উজ্জ্বল ইতিহাস রয়েছে। তুলার কারণে পার্বত্য চট্টগ্রামের আদি নাম কার্পাস মহল। এখানে তুলা চাষের ব্যপক সম্ভাবনা আছে। সে সম্ভাবনা কাজে লাগাতে হবে। তুলা চাষ সম্প্রসারণ, বাজারজাত করণের জন্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে যা যা করণীয় তা করা হবে।

কর্মশালা শুরুতে তুলা চাষের উপর একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন তুলা উন্নয়ন বোর্ডের চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ পরিচালক নাছির উদ্দীন আহমেদ।

তুলা উন্নয়ন বোর্ডের  ঢাকা সদর দপ্তরের নির্বাহী পরিচালক কৃষিবিদ  মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা তুলা বোর্ডের সমন্বয়ক অংসুই ছাইন চৌধুরী, রাঙামাটি অঞ্চলের কৃষি সম্প্রসারণের অতিরিক্ত পরিচালক মো নাসিম হায়দার,  রাঙামাটি প্রধান তুলা উন্নয়ন কর্মকর্তা পরেশ চন্দ্র চাকমা, জেলা কৃষি সম্প্রসারণের উপ-পরিচালক তপন কুমার পাল।

কর্মশালায় প্রত্যক্ষ তুলাচাষীরা বলেন, তুলা নিয়ে চাষীদের মাঝে ভ্রান্ত ধারণা আছে। তারা মনে করে তুলা হাল্কা জিনিস। লাভ হবে না। কিন্তু বাস্তব অর্থে তা নয়। এক বিঘা জমিতে তুলা চাষ করলে ১৫-২০ হাজার টাকা খরচ হয় কিন্তু খরচ বাদে লাভ হয় ৪০-৪৫ হাজার। এটি বিক্রয়ে কোন ঝামেলা নেই।

সর্বশেষ - আইন ও অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

খাগড়াছড়িতে মন্ডপে মন্ডপে বিষাদের সুর; মা দুর্গাকে বিসর্জন

লংগদুর তিনটিলা সরকারী প্রাঃ বিদ্যালয়ে দুর্ধর্ষ চুরি

বাঘাইছড়িতে খোলা বাজারে চাল বিক্রি শুরু

কাপ্তাই নব নির্বাচিত চেয়ারম্যানকে লগগেইট জয়কালী মন্দিরে সংবর্ধনা

লংগদু জোনের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ঔষুধ বিতরণ

খাগড়াছড়িতে দুর্গাপূজা উপলক্ষে বস্ত্র বিতরণ করলো সনাতন ছাত্র-যুব পরিষদ

গলায় গামছা পেঁচিয়ে স্কুল শিক্ষার্থীর আত্নহত্যা

জুরাছড়িতে মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার

রাঙামাটিতে আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার

রামগড়ে শতাধিক দুঃস্হ অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলো বিজিবি

%d bloggers like this: